মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

এক নজরে ঠাকুরগাঁও

ঠাকুরগাঁও

হিরণ্ময় ঐতিহ্যের এক জনপদ

 

পরিচিতি

ঠাকুর পরিবারের বা এ এলাকায় ব্রাহ্মণদের সংখ্যাধিক্যের কারণে ঠাকুরগাঁও নামকরণ হয়েছে। ১৮০০ সালে ঠাকুরগাঁও থানা স্থাপিত হওয়ার পর ১৮৬০ সালে সদর, বালিয়াডাঙ্গী, পীরগঞ্জ, রাণীশংকৈল, হরিপুর ও আটোয়ারী নিয়ে ঠাকুরগাঁও মহকুমার যাত্রা। পরবর্তীতে জলপাইগুড়ি ও কোচবিহার জেলার পঞ্চগড়, বোদা, দেবীগঞ্জ ও তেতুলিয়া এ চারটি থানা ঠাকুরগাঁও মহকুমার সাথে সংযুক্ত হয়। ১৯৮১ সালে আটোয়ারী সহ উক্ত ৪টি থানা নিয়ে পঞ্চগড় মহকুমা সৃষ্টি হলে ঠাকুরগাঁও মহকুমার সীমানা বর্তমান ৫টি উপজেলার মধ্যে সংকুচিত হয়। ১৯৮৪ সালে ১ ফেব্রুয়ারি ঠাকুরগাঁও জেলা হিসেবে যাত্রা শুরু করে।

 

অবস্থান

২৫●৪০” হতে ২৬●১০” উত্তর অক্ষাংশের এবং ৮৮●৩৬” হতে ৮৮●৩৬” পূর্ব দ্রাঘিমা। সমুদ্র পৃষ্ট হতে ৫২মি. উচ্চতায় অবস্থিত। ভারতের সাথে জেলার সীমান্ত ৮৫ কি.মি.। জলবায়ু নাতিশীতোষ্ণ। বার্ষিক গড় তাপমাত্রা সর্বোচ্চ ৩৩.৫● সে., সর্বনিম্ন ১০.৫● সে.। গড় বৃষ্টিপাত ২৫৩৬ মি.মি.।

 

আয়তন

১৮০৯.৫২ কি.মি., জনসংখ্যা- ১৪,৬৬,৮৭৭ জন। জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গ কি.মি. ৭৫১ জন, জনসংখ্যার বৃদ্ধির হার- ১.৪৮% জনগোষ্ঠি: মুসলমান, হিন্দু, খ্রিস্টান, নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠি: মুন্ডা, বোডো, সাঁওতাল, ওড়াও, কোচ, পলিয়া, রাজবংশী, হো, মাহাতো, মালো, কুমার, হাড়ি, ভুঁইয়া, গাংঘু। গ্রামের সংখ্যা- ১১০৬, মৌজার সংখ্যা- ৬৪৭, ইউনিয়ন -৫৩টি, পৌরসভা- ৩টি, উপজেলা- ৫টি, উপজেলা: ঠাকুরগাঁও সদর, পীরগঞ্জ, রাণীশংকৈল, বালিয়াডাঙ্গী ও হরিপুর। পৌরসভা: ঠাকুরগাঁও সদর, পীরগঞ্জ ও রাণীশংকৈল।

 

নদ-নদী

টাঙ্গন, কুলিক, নাগর, সেনুয়া, শুক, ঢেপা, ভুল্লী , তীরনই।

 

দর্শনীয় স্থান ও পুরাকৃতি

রাণীশংকৈল জমিদারবাড়ী, হরিপুর জমিদারবাড়ী, রামরাই দীঘি, নাথ মন্দির, জামালপুর জামে মসজিদ, প্রাচীন রাজভিটা, জগদল রাজবাড়ী, প্রাচীন জনপদ নেকমরদ, মহালবাড়ী মসজিদ, শালবাড়ী মসজিদ ও ইমামবাড়া, সনগাঁও শাহী মসজিদ, ফতেহপুর মসজিদ, মেদনীসাগর জামে মসজিদ, গেদুড়া মসজিদ, গোরক্ষণাথ মন্দির ও তৎসংলগ্ন কুপ ও শিলালিপি, হরিণমারী শিব মন্দির, গোবিন্দনগর মন্দির, খোলাহাট মন্দির, কোরমখানের গড়, বলাকা উদ্যান, টাঙ্গন ব্যারেজ, শাসলাপেয়ালা দীঘি, খুরুম খুয়া দীঘি, রাজা টঙ্কনাথের রাজবাড়ী, বালিয়াডাঙ্গীর সূর্যপুরী আমগাছ।

 

লোক সংস্কৃতি

ধামের গান, ভাওয়াইয়া, পালাগান, পল্লীগীতি, কবিগান, বিচারগান, কোয়ালী গান, বিষহরি গান, সত্যপীরের গান, কীর্তন, বিয়ের গান ও আদিবাসীদের গান।

 

ইউনিয়নসমূহ

সদর উপজেলা: রুহিয়া, আখানগর, আকচা, বড়গাঁও, বালিয়া, আউলিয়াপুর, চিলারং, রহিমানপুর, রায়পুর, জামালপুর, মোহাম্মদপুর, সালন্দর, গড়েয়া, রাজাগাঁও, দেবীপুর, নারগুন, জগন্নাথপুর, শুখানপুকুরী, বেগুনবাড়ী। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা: পাড়িয়া, চাড়োল, ধনতলা, বড়পলাশবাড়ী, দুওসুও, ভানোর, আমজানখোর, বড়বাড়ী। হরিপুর উপজেলা: গেদুড়া, আমগাঁও, বকুয়া, ডাঙ্গীপাড়া, হরিপুর, ভাতুরিয়া। রাণীশংকৈল উপজেলা: ধর্মগড়, নেকমরদ, হোসেনগাঁও, লেহেম্বা, বাচোর, কাশিপুর, রাতোর, নন্দুয়ার। পীরগঞ্জ উপজেলা: সৈয়দপুর, ভোমরাদহ, কোষারাণীগঞ্জ, খনগাঁও, পীরগঞ্জ, হাজীপুর, দৌলতপুর, সেনগাঁও, জাবরহাট, বৈরচুনা।

 

প্রধান প্রধান হাট-বাজার

শিবগঞ্জ বাজার, খোচাবাড়ি হাট, রুহিয়া রামনাথ হাট, গড়েয়া হাট, কালমেঘ হাট, যাদুরাণী হাট, ফাড়াবাড়ি হাট, বেগুনবাড়ি হাট, লাহিড়ী হাট। মেলাসমূহ: কালিমেলা, রুহিয়া আজাদ মেলা, নেকমরদ মেলা।

 

যোগাযোগ ব্যবস্থা

আন্তঃজেলা সড়ক- ৩৩ কি.মি., আন্তঃ উপজেলা সড়ক- ১৩১.৮৮ কি.মি., গ্রামীণ পাকা সড়ক- ৪৭৬ কি.মি., গ্রামীণ কাচা সড়ক- ২৯৮২ কি.মি., রেলপথ- ৩৯ কি.মি., রেল স্টেশন- ৬টি।

 

শিক্ষা

ডিগ্রী কলেজ ১৮টি, ইন্টারমেডিয়েট কলেজ ২৭টি, মহাবিদ্যালয় ৪৬টি, পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট- ১টি, কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র- ০১টি, মাধ্যমিক বিদ্যালয়- ২৭৯টি, নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়- ১৩৯টি, মাদ্রাসা- ১৬৯টি, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়- ৪১৯টি, রেজিঃ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়- ৪৪৬টি, কমিউনিটি- ৪১টি, শিক্ষার হার- ৪৯.৪৩%, স্বাক্ষরতার হার ৫২%।

 

শিল্প প্রতিষ্ঠান

ভারি শিল্প ১টি (ঠাকুরগাঁও সুগার মিল, উৎপাদন ক্ষমতা- ১৫২৪০ মে.টন, মিলের জমির পরিমাণ- ২৮৮৭.০২ একর)। হালকা শিল্প- ২৬৩৮টি, মাঝারী শিল্প ১১টি। কোল্ডস্টরেজ ৭টি, ধারণক্ষমতা- ৩৯৭৭৮৪ মে.টন)। কুটির শিল্প ৯১৬৫ টি, শিল্প নগরী- ১টি।

 

কৃষি

কৃষি ব্লকের সংখ্যা- ১৬২টি, কৃষি পরিবারের সংখ্যা- ২,৬৬,৫১০, মোট আবাদী জমি- ১,৫১,৮৪১ হেক্টর, বসতবাড়ী, প্রতিষ্ঠান ও বাজার- ২০,৮১৩ হে., ফলবাগান- ৪,১১০ হে., ফসলের নিবিড়তার হার- ২৪৪.৭৭ হে., এক ফসলী- ৭০৬৪হে. (৪.৬৫%), দো-ফসলী- ৭৪৪৬১ হে.(৪৯.০৪%), তিন- ফসলী- ৬৫৫৮৮ হে. (৪৩.২০%), তিনের অধিক- ৪৭২৮হে. (৩.১১%), উঁচু জমি- ৭৬৩৬৪ হে., মাঝারী উঁচু- ৫৯৪৫২হে., মাঝারী নিচু- ১৫৫৬২ হে., নিচু- ১৫৬০ হে., নার্সারী সরকারি ও বরেন্দ্র- ১২টি, বে-সরকারি- ১১৯টি, গভীর নলকূপ-১২৪২টি, অগভীর নলকূপ- ৪৭২১৪টি, সেচের আওতাভূক্ত জমি-১৪১৩০৫ হে., সেচ বহির্ভূত জমি- ১০৫৩৬ হে., পাওয়ার টিলারের সংখ্যা-৬৪৫২টি, ট্রাক্টর সংখ্যা- ৫২০টি, হর্টিকালচার সেন্টার- ১টি।

 

মৎস্য সম্পদ

পুকুরের সংখ্যা: সরকারি- ৬২৯ টি, আয়তন- ৩২৩.৬১হে., উৎপাদন- ১১২৭.৩৯ মে.টন, বেসরকারি- ১২৪২৭টি, আয়তন- ৪৭৫২.৮০ হে., উৎপাদন- ১৫৯৬৫ মে.টন, বিলের সংখ্যা: সরকারি- ১৭ টি, আয়তন- ৯০ হে., উৎপাদন- ৬৫.৯১ মে.টন, বেসরকারি- ৩৫ টি, আয়তন- ৬১৭.৬৭ হে., উৎপাদন- ২৭৯.১৪ মে.টন, প্লাবন ভূমি : সরকারি- ১২ টি, আয়তন- ১৭৬৪ হে., উৎপাদন- ৩৪৭.৬৩ মে.টন, বে-সরকারি- ৮১ টি, আয়তন- ৪৪৯০ হে., উৎপাদন- ১১০০.৬১২ মে.টন, নদী- ১৭ টি, আয়তন- ১০৮৭.০৪ হে., উৎপাদন- ৭৭.২৯ মে.টন, খাল : সরকারি- ৩ টি, আয়তন- ১৪.৬০ হে., উৎপাদন- ৬.৫৯ মে.টন, বে-সরকারি- ২ টি, আয়তন- ২.১২ হে., উৎপাদন- ০.৭০ মে.টন, বাণিজ্যিক মৎস্য খামার- ৪৫ টি, আয়তন- ৫৩.৩৬ হে., উৎপাদন- ৭১৬.৩৬ মে.টন, ধানক্ষেতে মাছ চাষ- ১১৪ টি, আয়তন- ২৬.৯০ হে., উৎপাদন- ১৭.৪১ মে.টন, বারোপিট- ৪ টি, আয়তন- ৪.৮৫ হে., উৎপাদন- ৩.৯৩ মে.টন, মৎস্য হ্যাচারী : সরকারি- ১ টি, আয়তন- ০.৩২ হে., উৎপাদন- রেনু- ৪০ কেজি, বেসরকারি- ৪ টি, আয়তন- ৬ হে., উৎপাদন- রেনু- ১৮০০ কেজি। মোট মাছ উৎপাদন- ১৯৭০৮.৩৩ মে.টন, মোট মাছের চাহিদা- ২১১৫৫ মে.টন ও মাছের ঘাটতি- ১৪৪৬.৬৭ মে.টন। মৎস্য চাষি- ১৩৩৯৫ জন, মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির সংখ্যা- ৭১টি ও সদস্য সংখ্যা- ১৭৪৫জন। মৎস্য চাষি সমবায় সমিতির সংখ্যা- ১২৬টি ও সদস্য সংখ্যা- ২৫২৩ জন ও মৎস্য আড়ৎ এর সংখ্যা- ১৪টি।

 

পশু সম্পদ

ঠাকুরগাঁও জেলায় বতমানে একটি জেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর, একটি জেলা কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্র, একটি সরকারি হাঁসমুরগির খামার, ১১টি প্রাণিসম্পদ কল্যাণ কেন্দ্র, ১০টি সরকারি কৃত্রিম প্রজনন পয়েন্ট, ৫৫টি স্বেচ্ছাসেবী কৃত্রিম প্রজনন পয়েন্ট রয়েছে। জেলায় ৬৪৪৩৯৫ টি গরু, ১৬১০০০ টি গাভী, ৫৪৩০০০টি ছাগল, ১২৬৭৭ টি মহিষ, ৪৭০০টি ভেড়া, ৩১১৭৬০৩ টি মোরগ-মুরগি, ১৯৮১৮৬ টি হাঁস, ৫৬০০০ টি কোয়েল রয়েছে। এছাড়া এই জেলায় ৫০৮টি গাভী, ৪৬টি ছাগল, ০২টি ভেড়া, ১২১টি লেয়ার মুরগি, ২০৯টি ব্রয়লার মুরগি, ৩২টি হাঁসের ও ১টি কোয়েল এর রেজিষ্টার্ড খামার রয়েছে এবং ১৩টি লাইসেন্স প্রাপ্ত ফিড এর দোকান ও ৩টি ফিড মিল রয়েছে।

 

খাদ্য

বার্ষিক খাদ্য চাহিদা- ১৪৯০৩২ মে.ট. ও মোট খাদ্য উৎপাদন- ৮৮০১৪০ মে.টন।

 

স্বাস্থ্য

সদর হাসপাতাল- ১টি, বক্ষ ব্যাধি ক্লিনিক- ১টি, নার্সিং ট্রেনিং সেন্টার- ১টি, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিবকল্পনা কেন্দ্র- ১৩টি, কমিউনিটি ক্লিনিক- ১৩৭টি, মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র- ১টি, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র- ৪৬টি, সেটার ক্লিনিক- ৬৩টি।

 

বন

থুমনিয়া শালবাগান, আয়তন- ৫০৩.৬২ একর, শাগুনি শালবাগান, আয়তন- ১৫২.৩২ একর।

 

ভূমি ব্যবস্থাপনা

ইউনিয়ন ভূমি অফিস- ৪১টি, কৃষি জমি- ১৮১১৮৬.০৯ একর, অকৃষি জমি- ২৫০৭১১.৮৫ একর, কর আদায়যোগ্য জমি- ৪১০৬৫৮.২৮ একর, কর অনাদায়যোগ্য জমি- ২১২৩৯.৬৬ একর, মোট খাসজমির পরিমাণ- ১২৮৫৮.০৮৫৪ একর, মোট বন্দোবস্তযোগ্য খাস জমির পরিমাণ- ৫৭৭৩.১১০৪ একর, মোট অর্পিত সম্পত্তির পরিমাণ- ৫২৬৬.৩৭৫ একর, মোট পরিত্যক্ত সম্পত্তির পরিমাণ- ১৪৬৬.৬৯৫ একর, খাসজমি বন্দোবস্তযোগ্য গ্রহণকারীর পরিবারের সংখ্যা- ৯২৬৮ টি, জেলায় মোট আশ্রয়ন প্রকল্প- ৩টি, পূনর্বাসিত পরিবারের সংখ্যা- ১৪৪টি, জেলায় মোট আবাসন প্রকল্প- ৬টি, পূনর্বাসিত পরিবারের সংখ্যা- ৪০০টি, বাস্তবায়িত আদর্শগ্রাম- ১০টি ও পূনর্বাসিত পরিবারের সংখ্যা- ৩৮২টি।

 

জন্ম নিবন্ধন

মোট জনসংখ্যা- ১৪,৬৬,৮৭৭ জন, মোট নিবন্ধিত জনসংখ্যা- ১৪২৬৭৮৯ জন ও বাস্তব অগ্রগতির হার- ৯৭.২৭%।

 

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর

ভিজিডি কার্ডধারী- ১০৭৩২ জন। মহিলা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রতি ট্রেডের ১০ জন করে ৩মাস মেয়াদে আধুনিক দর্জিবিজ্ঞান/ সেলাই, বিউটিফিকেশন, খাদ্য দ্রব্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, মোমবাতি তৈরি, নার্সারী/ ব্লক বাটিক সহ বিভিন্ন সচেতনতামূলক বিষয়ের উপর ৫টি ট্রেডের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। মাতৃভাতা: ঠাকুরগাঁও জেলা ও জেলাধীন মাতৃত্বভাতা ভোগীর সংখ্যা- ১০২৭জন।

কর্মজীবি ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা তহবিল: ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় ১২টি ওয়ার্ডে ল্যাকটেটিং ভাতাভোগী ৮৭৬জন।

 

জনকল্যাণমূলক কার্যক্রম

মুক্তিযোদ্ধা ভাতাভোগীর সংখ্যা ১৪০৪ জন। প্রতিবন্ধী ভাতাভোগীর সংখ্যা ৬৫৪৩ জন। এসিডদগ্ধ ও শারিরীক প্রতিবন্ধীদের ঋণীর সংখ্যা ৮০২ জন। প্রকল্পের সংখ্যা ৭৬২। বিনিয়োগকৃত অর্থের পরিমাণ ৮৫৩৩৩/- টাকা। আদায়ের হার ৭০%। বয়স্ক ভাতাভোগীর সংখ্যা ২৮৫০৯ জন (ডিসেম্বর/২০১৫ পর্যন্ত)।

 

স্যানিটেশন

১০০% স্যানিটেশন কাভারেজ অর্জিত ইউনিয়নের সংখ্যা ০৮টি, সার্বিকভাবে জেলার অগ্রগতির হার ৯৩.৯০%।

 

নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী

নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী- ১২,২২৯ জন, ক্ষুদ্র ঋণ উপকারভোগীর সংখ্যা- ১০২২ জন, পরিমাণ =৩৩,১১,০০০/- টাকা।

 

প্রধান প্রধান এনজিও

ইএসডিও, আশা, কারিতাস, মানব কল্যাণ সংস্থা, সমাজ কল্যাণ সংস্থা, আরডিআরএস, চেতনা, রোজেস, স্বাস্থ্য সেবা ক্লিনিক, লেপ্রোসি মিশন, কেয়ার বাংলাদেশ, ব্র্যাক।

 

সামাজিক সংগঠন

ক্লাব ১৭২টি, নারী সংগঠন ১৯৮টি, সামাজিক উন্নয়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত সংস্থা: সমাজসেবা অধিদপ্তর, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, বালক ও বালিকা এতিমখানা।

 

ক্রীড়াঙ্গন

ক্লাবসমূহ: আগমনী স্পোর্টিং ক্লাব, সাম্য ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী, সরকারপাড়া আজাদ ক্লাব, টাউন ক্লাব, আশ্রমপাড়া তরুণ সংঘ, বাবু স্মৃতি সংসদ, আর্টগ্যালারী একাদশ, রুশ স্মৃতি সংসদ ইত্যাদি।

 

সাহিত্য ও সংস্কৃতি

প্রকাশনা: সেনুয়া (ত্রৈমাসিক) ডাইজেস্ট, চালচিত্র, সাপ্তাহিক জনরব (সংবাদপত্র)। গ্রন্থাগার: সাধারণ পাঠাগার, সরকারি গ্রন্থাগার। সাংস্কৃতিক ক্লাব: নিক্কন সংগীত বিদ্যালয়, আলপনা সাহিত্য সংস্কৃতি সংসদ, সুরসপ্তক শিল্পগোষ্ঠী, শাপলা নাট্য গোষ্ঠী, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী। থিয়েটার গ্রুপ ১৩টি। শিল্পকলা একাডেমী ১টি, ঠাকুরগাঁও বেতার কেন্দ্র ও বিটিভি রিলে স্টেশন।

ছবি


সংযুক্তি

এক নজরে ঠাকুরগাঁও এক নজরে ঠাকুরগাঁও


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter